mission71

মধ্য বয়সী একটি মেয়ে কোন এক আইসক্রিম ফ্যাক্টরির ম্যানেজার হিসাবে কাজ করত। তার কাজ ছিল, প্রতিদিন আইসক্রিম তৈরী এবং বিক্রির হিসাব রাখা।
একদিন কাজ শেষ হবার কিছু সময় আগে সে আইসক্রিম রাখার স্টোরেজ রুমে ঢুকল। যেটা মূলত কোল্ড স্টরেজ। তখন হুট করে বাইরে থেকে দরজাটি লক হয়ে যায়। সে অনেক চেষ্টা করলেও দরজাটা খোলা সম্ভব হয় নি। অনেক চিৎকার করেও কেন লাভ হয় নি। কারণ ততোক্ষণে অন্যান্য সব কর্মী কাজ শেষ করে বেরিয়ে গেছে।
আস্তে আস্তে সে ঠান্ডায় জমে যেতে লাগল। সে কাঁদছিলো কারণ সে জানে তার মৃত্যু আসন্ন এবং তার বাঁচার কোন সম্ভাবনাই নেই।
হঠাৎ বেশ অপ্রত্যাশিতভাবে একজন সিকিউরিটি গার্ড এসে দরজা খুললেন এবং তাকে অর্ধ হিম অবস্থায় সেখান থেকে তাকে মুক্ত করলেন। মেয়েটি কাঁপতে কাঁপতে তাকে জিজ্ঞেস করলো, আপনার তো এখানে আসার কথা নয়। হঠাৎ কি মনে করে এমন সময় এখানে আসলেন?
গার্ড উত্তর দিলেন, আমি একটা দীর্ঘ সময় ধরে এ কম্পানিতে সিকিউরিটি গার্ডের কাজ করছি। প্রায় ৩৫ বছর। কিন্তু আমি এমন মানুষ খুব কম দেখেছি যারা প্রতি সকালে আমাকে সালাম দিয়ে ঢুকেছে এবং সন্ধ্যায় বের হবার সময় সালাম দিয়ে বেরিয়েছে। বেশিরভাগ মানুষ এমন আচরণ করত যেন তারা আমাকে দেখতেই পায় না। কিন্তু আপনি ছিলেন সেই মানুষ যিনি প্রতিদিন আমাকে হাসিমুখে সালাম করতেন। এবং যথারীতি আজ সকালেও করেছেন।
কিন্তু আজ সন্ধ্যায় আমি আপনার কাছ থেকে সালাম শুনিনি। তার মানে আপনি এখনো বের হন নি। সেটা আমি বুঝতে পেরে আপনাকে খুঁজতে শুরু করি।
শিক্ষা: আমাদের জীবন খুবই ছোট। এই পৃথিবীতে কাউকে ছোট মনে করবেন না। সবাইকে যথাযত সম্মান দিয়ে কথা বলুন। জীবনের প্রয়োজনে কখন কাকে আপনার প্রয়োজন হবে সেটা বলা যায় না। বড় জব বা টাকা পয়সার মালিক হলেই কেউ বড় হয়ে যায় না। বিনয়, সামাজিকতা, সুশিক্ষা মানুষকে বড় করে তুলে।