mission71

এবার চায়ের রাজ্য মৌলভীবাজারের পর্যটন ব্যবস্থাকে আরও একধাপ এগিয়ে নিতে পর্যটকদের সুবিধায় রাস্তায় নামছে বিশেষ ‘ট্যুরিস্ট বাস সার্ভিস’। জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে পর্যটন অধ্যুষিত মৌলভীবাজারে প্রথমবারের মতো ট্যুরিস্টদের সুবিধার্থে চালু হতে যাচ্ছে বিশেষ এই বাস চলাচল।

বৃহস্পতিবার (১৪ অক্টোবর) দুপুরে দেশি-বিদেশি পর্যটকদের ভ্রমণের সুবিধার্থে জেলা প্রশাসক কার্যালয় প্রাঙ্গনে ট্যুরিস্ট বাস সার্ভিসের উদ্বোধন করেন সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার মো. খলিলুর রহমান।

জেলার বড়লেখা, কুলাউড়া, কমলগঞ্জ ও শ্রীমঙ্গলে রয়েছে চা বাগান, প্রাকৃতিক ঝরনা মাধবকুণ্ড জলপ্রপাত, লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যান, গগণটিলা পাহাড়, খাসিয়া পল্লী, হাকালুকি হাওর, মাধবপুর লেক, সিতেশ রঞ্জনের চিড়িয়াখানা, বর্ষিজোড়া ইকোপার্ক, মনু ব্যারেজ, বাইক্কা বিলসহ দর্শনীয় স্থান।

প্রতিদিন প্রাকৃতিক দৃশ্য উপভোগ করতে দেশি-বিদেশি পর্যটকরা ছুটে আসেন মৌলভীবাজারে। কিন্তু যাতায়াতের সঠিক ধারণা না থাকায় পর্যটকরা ২-৪টি দর্শনীয় স্থান দেখেই ফিরে যান। এতে বাকি পর্যটনকেন্দ্র গুলোর সৌন্দর্য্য উপভোগ থেকে তারা বঞ্চিত হন। আবার মাঝেমধ্যে বিড়ম্বনায় পড়েন। কম সময় ও কম খরচে এসব পর্যটন কেন্দ্র দর্শনের ব্যবস্থা করতেই জেলা প্রশাসন চালু করছে ‘ট্যুরিস্ট বাস’। ৪০ সিটের দুটি বাস দিয়ে দুই প্যাকেজে এই সার্ভিস চালু হচ্ছে এবং দুটি প্যাকেজে টিকেট মিলবে।

সপ্তাহে শুক্র ও শনিবার দু’টি বাস সকাল ৯টায় জেলার বিভিন্ন পর্যটন স্পটে যাওয়া আসা করবে। পর্যটক প্রতি খাওয়াসহ ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে ৪৫০ টাকা। ট্যুরিস্ট বাসে ভ্রমণকারীদের ট্যুরিস্ট স্পটে এন্ট্রি ফি নেওয়া হবে না।

টিকেট পাওয়া যাবে শ্রীমঙ্গলের হবিগঞ্জ রোডের শ্যামলী, মৌলভীবাজারের হানিফ ও বড়লেখার শ্যামলী বাস কাউন্টারে।