mission71

সিরিয়ায় ইচ্ছাকৃতভাবে বনে ভয়াবহ দাবানল সৃষ্টি করার জন্য দোষী সাব্যস্ত ২৪ জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে। অন্য ১১ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে এবং পাঁচজন নাবালককে ১০ থেকে ১২ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। দেশটির বিচার মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। খবর বিবিসির।

গত বছরের তাদের এই আগুন দেওয়াকে ‌‘সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড’ হিসেবে বর্ণনা দেওয়া হয়েছে। গত বুধবার অভিযুক্ত ২৪ ব্যক্তির মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়। অভিযুক্তদের নাম পরিচয় প্রকাশ করা হয়নি। এ ছাড়া কোথায় বা কীভাবে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে তাও জানানো হয়নি।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স ও কাতারের সংবাদমাধ্যম আল জাজিরার খবরে বলা হয়েছে, সিরিয়ার উপকূলীয় প্রদেশ লাতাকিয়াসহ কিছু এলাকার বিস্তৃত বনভূমিতে ওই অগ্নিসংযোগে দাবানলের সৃষ্টি হয়। এতে তিনজনের মৃত্যু হয়েছিল। ২০২০ সালের সেপ্টেম্বরের শুরুতে লাতাকিয়া, টারটাস এবং হোমস প্রদেশে দাবানলের ঘটনা ঘটে। তখন ২৮০টি শহর ও গ্রামে লাগা ১৮৭টি আগুনের ঘটনায় ১৩ হাজার হেক্টর (৩২ হাজার একর) কৃষিজমি ও ১১ হাজার হেক্টর বনভূমি আগুনে পুড়ে যায়। ক্ষতিগ্রস্ত হয় ৩৭০টি ঘরবাড়ি।
লাতাকিয়া এলাকায় অবস্থিত প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের পৈত্রিক বাড়িও ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এ ছাড়া রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন তামাক কোম্পানির সঞ্চয়স্থান হিসেবে ব্যবহৃত ভবনের একটি অংশ ধসে পড়ে।