mission71

নিরাপদ সড়ক ও বাসে অর্ধেক ভাড়া কার্যকরের দাবিতে রাজধানীতে শিক্ষার্থীদের যে আন্দোলন চলছে সেখানে তাদের ‘মায়েরা’ও ঢুকে গেছেন বলে মন্তব্য করেছেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

রোববার (৫ ডিসেম্বর) সচিবালয়ে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ে চলমান বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এ মন্তব্য করেন তিনি।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, এখন ছাত্রদের আন্দোলনে দেখা যাচ্ছে ৩০-৩৫ বছর বয়সী ছাত্রের মায়েরাও ঢুকে গেছেন। আমরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেখলাম ৩৫ বছর বয়সী একটি রাজনৈতিক দলের নেত্রী স্কুল ড্রেস পরে আন্দোলন করছেন। আর কালকে আমি টেলিভিশনে কয়েকটি মুখ দেখলাম, তাদের দেখে মনে হয় না তারা স্কুলের ছাত্র বা ছাত্রী। এখন তাদের মধ্যে রাজনীতিবিদরা ঢুকে গেছে এবং রাজনৈতিক উদ্দেশ্যও সেখানে ঢুকে গেছে। সুতরাং ছাত্রদের যাতে কেউ রাজনীতির হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করতে না পারে, সে জন্য সতর্ক থাকতে হবে।

 

মন্ত্রী বলেন, ছাত্ররা নিরাপদ সড়কের জন্য আন্দোলন করছে, সেজন্য আমরা সহানুভূতিশীল। পাশাপাশি তারা যে হাফ ভাড়ার জন্য আন্দোলন করেছে, সেজন্য প্রধানমন্ত্রী তাদের প্রতি সহানুভূতিশীল হয়ে তিনি বিআরটিসি বাসে সারা দেশে হাফ ভাড়া কার্যকর করেছেন। ইতোমধ্যে বাস মালিক সমিতি হাফ ভাড়া ঢাকা ও চট্টগ্রামে কার্যকর করেছে।

তিনি বলেন, নিরাপদ সড়ক, এটা আমরা সবাই চাই। এটা শুধু শিক্ষার্থী না, সবাই আমরা নিরাপদ সড়ক চাই। সে দাবির প্রতি আমাদেরও সমর্থন আছে। কিন্তু তাই বলে রাস্তাঘাট আটকে আন্দোলন করা, সেটা কতটুকু যৌক্তিক? অন্য মানুষের ভোগান্তিতে ফেলে আন্দোলন করা সেটা কতটুকু যৌক্তিক, সে প্রশ্নও থেকে যায়।