mission71

প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট থাকে বেদানায়। যার ফলে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়, এই মহামারি করোনা মোকাবিলায় যা সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন।

ফলিক অ্যাসিড, ভিটামিন-সি, সাইট্রিক অ্যাসিড ট্যানিন-সমৃদ্ধ বেদানা আমাদের স্বাস্থ্য, ত্বক ও চুলের জন্য দারুণ উপকারি। এছাড়াও বেদানা খেলে- • রক্তাল্পতা বা অ্যানিমিয়া দূর করে • হাড় মজবুত করে • হার্টে পর্যাপ্ত অক্সিজেন সরবরাহ করে • রক্ত চলাচল ভালো রাখে • হজম শক্তি বাড়ায় • যৌনক্ষমতা বাড়ে • ক্যানসার প্রতিরোধ করে • ত্বক উজ্জ্বল ও কোমল রাখে • চুল পড়া কমায় • রক্তের গ্লুকোজ নিয়ন্ত্রণ করে • রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখে • তারুণ্য ধরে রাখে • ক্লান্তি দূর করে • গর্ভের সন্তানের ব্রেইনে ক্ষতির আশঙ্কা কমে যায়

করোনাকালে উপকারগুলো পেতে প্রতিদিন আধা কাপ বেদানার রসের সঙ্গে(চিনি ছাড়া) সম পরিমাণে পানি মিশিয়ে পান করুন।

বেদানার জুস এর উপকারিতা:

১. হার্টে অক্সিজেন সরবরাহে ও রক্ত চলাচল ভালো রাখতে বেদানার রস উপকারী। গবেষণায় দেখা গেছে, তিন মাস প্রতিদিন এক কাপ করে বেদানার রস খেলে হার্টের মাসলে অক্সিজেন সরবরাহ বৃদ্ধি পায়।

২. ডায়রিয়ার সমস্যায় বেদানা খুবই উপকারী। দিনে দুই তিন বার বেদানার জুস খেতে পারলে এ সমস্যা থেকে অনেকাংশেই মুক্তি পাওয়া যায়।

৩ শীতের সময় জ্বর, ঠাণ্ডা, কাশি থেকে বাঁচার জন্য বেদানার জুস খেতে পারেন।

৪. বেদানায় প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট থাকে, যার ফলে আপনার শরীরের কোলেস্টরেল নিয়ন্ত্রণে থাকে। এছাড়া ফলিক অ্যাসিড, ভিটামিন-সি, সাইট্রিক অ্যাসিড ট্যানিন-সমৃদ্ধ বেদানা ত্বকের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে সাহায্য করে।
৫. প্রোস্ট্রেট ক্যান্সার ও স্কিন ক্যান্সার প্রতিরোধে বেদানার রস উপকারী।

তবে গর্ভবতী নারীরা চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে বেদানা খেতে পারেন। এতে শরীরে রক্ত-সঞ্চালন বাড়ে এবং শিশুর ব্রেইনে কোনো ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা কমে যায়। পাশাপাশি আপনি নিয়মিত কোনো ওষুধ খেলে বেদানা খাওয়ার আগে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।