mission71

বিতর্কিত সামরিক অভ্যুত্থানের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতার দায়ে মিয়ানমারের আরও দুই সেনা কর্মকর্তার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। এ বিষয়ে দ্রুত আরও পদক্ষেপ নেওয়া হতে পারে বলেও জানিয়েছে বাইডেন প্রশাসন।

সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) যুক্তরাষ্ট্রের অর্থ মন্ত্রণালয়ের বিদেশি সম্পদ নিয়ন্ত্রণ বিভাগ জানিয়েছে, নিরাপত্তা বাহিনী কর্তৃক শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভকারীদের হত্যার জবাবে এই ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। চলমান আন্দোলনে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে এখন পর্যন্ত তিনজন নিহত হয়েছেন। খবর রয়টার্সের

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন টুইট বার্তায় বলেন, সামরিক নেতাদের জনগণকে দমন করার ইচ্ছার বিরুদ্ধে এটি আরেকটি পদক্ষেপ।

নিষেধাজ্ঞার আওতায় আসা এই দুই সামরিক কর্মকর্তা হলেন লেফটেন্যান্ট জেনারেল মোয়ে মিন্ট তুন এবং জেনারেল মং মং কিয়াউ। তারা দুজনই স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ কাউন্সিলের (এসএসি) সদস্য। এই নিষেধাজ্ঞার আওতায় যুক্তরাষ্ট্রের থাকা তাদের সব সম্পদ আটকে দেয়া হবে।

গত ১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারের সেনাবাহিনী ২০২০ সালের নভেম্বরে অনুষ্ঠিত জাতীয় নির্বাচনে ব্যাপক ভোট কারচুপির অভিযোগ তুলে সু চিকে ক্ষমতাচ্যুত করে। সেনাবাহিনী নতুন নির্বাচন দিয়ে ক্ষমতা হস্তান্তরের আশ্বাস দিয়েছে। কিন্তু প্রতিবাদকারীরা সেনাবাহিনীর আশ্বাসকে প্রত্যাখ্যান করে গ্রেপ্তারকৃত নেতৃবৃন্দের মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভ করে যাচ্ছে।