mission71

পশ্চিমবঙ্গের জলপায়গুড়ি জেলায় ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনার ঘটনা ঘটেছে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার জানায়, বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) স্থানীয় সময় বিকেল পাঁচটায় এই দুর্ঘটনার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বেসরকারিভাবে এখন পর্যন্ত তিনজনের মৃত্যুর খবর জানা গেছে।

ট্রেন দুর্ঘটনায় অন্তত ৫০ জনের মৃত্যুর আশঙ্কা করা হচ্ছে। বিহারের পাটনা থেকে আসামের গোহাটিগামী বিকানের-গৌহাটি এক্সপ্রেস ময়নাগুড়ির দোমাহনি এলাকায় লাইনচ্যুত হয়। দুর্ঘটনার সময় ট্রেনটির গতিবেগ ঘণ্টায় ৪০ কিলোমিটার ছিল।

দুর্ঘটনার খবর পেয়ে আলিপুরদুয়ার থেকে ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে একটি উদ্ধারকারী দল। ট্রেনটির ৪-৫টি বগি দুমড়ে-মুচড়ে গিয়েছে।

ভারতের উত্তর-পূর্ব সীমান্ত রেলের জনসংযোগ কর্মকর্তা নীলাঞ্জন দেব আনন্দবাজার অনলাইনকে বলেন, বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টার দিকে গুয়াহাটি-বিকানের এক্সপ্রেস লাইনচ্যূত হয়। আলিপুরদুয়ার ডিভিশনের নিউ ময়নাগুড়ি এবং নিউ দোমোহনি সেকশনে এই ঘটনা ঘটেছে। রিলিফ ভ্যান যাচ্ছে। ডিআরএম-রাও যাচ্ছেন।

 

এদিকে জলপাইগুড়ির জেলা প্রশাসক মৌমিতাদেবী জানিয়েছেন, দুর্ঘটনার খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে উদ্ধারে ঝাঁপিয়ে পড়েছে প্রশাসন। এরই মধ্যে দুর্ঘটনাগ্রস্ত একটি কামরা থেকে ৩ জনের দেহ উদ্ধার হয়েছে।

আরও কেউ কামরার মধ্যে আটকে রয়েছেন কি না জানতে তল্লাশি চালাচ্ছে উদ্ধারকারী দল। এখনো পর্যন্ত ১০ – ১২ জনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

এদিকে দুর্ঘটনার খবর পেয়ে রাজ্য প্রশাসনকে তৎপর হওয়ার নির্দেশ দেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমস জানায়, জলপাইগুড়ি সদর হাসপাতাল থেকে ৩০টি অ্যাম্বুলেন্স দুর্ঘটনাস্থলের উদ্দেশে রওনা দিয়েছে।

আনন্দবাজার জানিয়েছে, যুদ্ধকালীন তৎপরতায় উদ্ধারকাজ শুরু হয়েছে। কী কারণে ট্রেন লাইনচ্যুত হয়েছে সে বিষয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।