mission71

টকবগে তরুন প্রতিদিন সময় সুযোগ করে বাংলাদেশে পরিবারের সাথে কথা বলতেন। পরিবারের সবার মনে হত সে দেশে থেকেই কথা বলছে কিন্তু গত ১ সপ্তাহ থেকে ফোন যোগাযোগ নেই। নীরব বুবাকান্নায় পরিণিত হয়েছে গোঠা পরিবারের।

দক্ষিণ অফ্রিকায় সন্ত্রাসীদের গুলিতে গোলাপগঞ্জের এক যুবক নিহত হয়েছেন। এসময় তার সাথে থাকা অপর আরেক বাংলাদেশী আহত হন। নিহত ওই যুবকের নাম হাফিজ আব্দুল আহাদ (৩০)। তিনি লক্ষীপাশা ইউনিয়নের পালপাড়া গ্রামের সজিব আলীর পুত্র। তবে আহত ব্যবসায়ীর নাম জানা যায়নি।

জানা যায়, মঙ্গলবার (৭ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ সময় সকাল ১০ টার দিকে (আফ্রিকার সময় ভোর ৬) টায় নিজ শহর ভল মারেস্টার্ড থেকে দোকানের মালামাল কিনতে আহাদ আরেক বাংলাদেশী ব্যবসায়ীকে সাথে নিয়ে একটি প্রাইভেট গাড়িতে করে প্লাস্টকে শহরে যাওয়ার জন্য রওয়ানা দেন। প্লাস্টকে শহরে পৌঁছানোর কিছু আগে পথেই ডাকাতদের গুলিতে নিহত হন তিনি।
নিহতের ভাতিজা মেহেদী হাসান বাপ্পি জানান, মঙ্গলবার (৭ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ সময় সকাল ১০ টার দিকে আব্দুল আহাদের গাড়ির চাকায় গুলি করে গাড়ির গতিরোধ করে ডাকাতরা। পরে তাকে গুলি করে সঙ্গে থাকা টাকা নিয়ে চলে যায়। ঘটনাস্থলেই গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান আব্দুল আহাদ। সাথে থাকা ব্যবসায়ীও গুলিবিদ্ধ হন। এখবর পরিবারের কাছে পৌছার পর শোকের মাতাব বইছে। গোঠা গ্রামবাসীর মাঝে বইছে নিরবতার শোক। কেউ মেনে নিতে পারছেন না তার মৃত্যুর কথা। গত ৪ দিন ধরে পরিবারের কারও থামাতে পারছেনা কান্না এখন লাশের অপেক্ষায় পরিবার।