mission71

করোনা অতিমারির মধ্যে ডেঙ্গু যেনো বড় আতঙ্কের কারণ না হয়ে দাঁড়ায় সেজন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম বলেছেন, “যারা ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়েছেন, হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন বা বাসায় রয়েছেন। আপনারা আমাদের কাছে আপনার বাসার ঠিকানা দিন আমরা ফাইন করবো না, আমরা আপনার বাসার ২০০ মিটার পেরিফেরির মধ্যে স্প্রে করে দেবো। দয়া করে কেউ ভুল তথ্য দেবেন না।”

শনিবার (১১ সেপ্টেম্বর) সুস্থতার জন্য সামাজিক আন্দোলনকে সফল করতে প্রতি শনিবার ১০টায় ১০মিনিট নিজ নিজ বাসাবাড়ি করি পরিষ্কার স্লোগান বাস্তবায়ন এবং ডেঙ্গু প্রতিরোধমূলক কার্যক্রম সরেজমিনে পরিদর্শনকালে মেয়র একথা বলেন। এদিন মধ্য পরীরেরবাগ এলাকার কয়েকজন ডেঙ্গু আ্ক্রান্ত রোগীর বাসায় যান মেয়র। সেখানে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর পরিবারের খোঁজ-খবর নেন এবং পরিবারের সদস্যদের হাতে ডিএনসিসি’র উপহার সামগ্রী তুলে দেন।

মধ্য পীরেরবাগের ৮৬ নং বাসায় চার বছরের এক শিশু মুগ্ধ ডেঙ্গু আক্রান্ত। সেই বাসায় গিয়ে মেয়র ছেলেটির বাবার কাছে উপহার সামগ্রী তুলে দিয়ে বলেন, “আপনার বাসা এবং আশপাশে আমরা স্প্রে করে দিচ্ছি আপনারা আমাদের তথ্য দিন আমরা সার্বক্ষণিক প্রস্তুত আছি। আমাদের র‌্যাপিড অ্যাকশন টিম প্রস্তুত আছে।”

মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে যারা হাসপাতালে ভর্তি আছেন, শিশু হাসপাতাল এবং অন্যান্য হাসপাতালে যারা ভর্তি থাকেন তাদের কাছে অনুরোধ থাকবে বাসার ঠিকানাগুলো দেওয়ার জন্য। আমরা বাসার ঠিকানা নিয়ে সেই বাসাতে যাচ্ছি। ওই বাসায় যাবার পর সেই বাসার ২০০ মিটার পেরিফেরির মধ্যে যা কিছু পাবো আমরা স্প্রে করে দেবো। আজ কয়েকটি বাসায় যাবো। হাসপাতাল থেকে যতোগুলো ঠিকানা পেয়েছি সেসব বাসাতে যাচ্ছি। আমরা সেখানে ২০০ মিটার পেরিফেরির মধ্যে স্প্রে করে দিচ্ছি যেনো এডিস মশা বংশ বিস্তার করতে না পারে।’

এসময় সঙ্গে ছিলেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জোবায়দুর রহমানসহ অন্যান্য কর্মকর্তাগণ।