mission71

আজ (শনিবার) ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী করোনাভাইরাস প্রতিরোধী টিকা উৎপাদনকারী ৭টি সংস্থার সঙ্গে বৈঠক করবেন। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী মনসুখ মান্দাবিয়া এবং কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী ভারতী প্রবীন পাওয়ারও বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন। দেশটিতে ১০০ কোটি ডোজ টিকা দেওয়ার মাইলফলক অর্জনের পর এই বৈঠক হতে যাচ্ছে। সরকারি কর্মকর্তাদের সূত্র দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে এনডিটিভি।

বৈঠকে টিকা নির্মাতা সংস্থা সিরাম ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়া (কোভিশিল্ড), ভারত বায়োটেক লিমিটেড (কোভ্যাক্সিন), জাইডাস ক্যাডিলা (জাইকোভ-ডি), বায়োলজিক্যাল ই (কোর্বেভ্যাক্স), জেনোভা বায়োফার্মা (এইচজিসি ০১৯), প্যানাসিয়া বায়োটেক (স্পুটনিক-ভি) এবং ডক্টর রেড্ডিস ল্যাবরেটরিজের প্রতিনিধিরা উপস্থিত থাকবেন।

দেশটিতে প্রাপ্ত বয়স্কদের টিকার আওতায় আনার বিষয়টিকে আরও গতিশীল করা এবং পর্যালোচনার লক্ষ্যেই এই বৈঠক হবে বলে জানানো হয়। তাছাড়া অন্যান্য দেশে অবস্থান করা সব ভারতীয়কে টিকা নিশ্চিতকরণের বিষয়েও বৈঠকে আলোচনা করবেন মোদী। ‘সবার জন্য টিকা’ এ স্লোগানকে সামনে রেখে দেশটিতে ব্যাপকভাবে টিকা কর্মসূচি চলছে।
ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সর্বশেষ তথ্যানুযায়ী, দেশটিতে করোনাভাইরাসের টিকার একশ কোটির বেশি ডোজ দেওয়া হয়েছে। এরই মধ্যে প্রাপ্তবয়স্ক নাগরিকদের মধ্যে কমপক্ষে ৭৫ শতাংশ মানুষ এক ডোজ টিকা নিয়েছেন।

তাছাড়া দেশটির কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জসহ নয়টি রাজ্য যেমন চণ্ডীগড়, গোয়া, হিমাচল প্রদেশ, জম্মু ও কাশ্মীর, লক্ষদ্বীপ, সিকিম, উত্তরাখণ্ড, দাদরা ও নগর হাভেলির সব প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ কমপক্ষে এক ডোজ টিকা গ্রহণ করেছেন।

ওয়ার্ল্ডোমিটারের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, করোনা সংক্রমণে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ভারত। দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন ১৬ হাজার ৩৩১ জন। একই সময়ে মারা গেছেন ৬৬৬ জন। ভারতে এখন পর্যন্ত করোনা সংক্রমিত হয়েছেন তিন কোটি ৪১ লাখ ৫৮ হাজার ৭৭২ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন চার লাখ ৫৩ হাজার ৭৪২ জন।