mission71

হীরা বলতেই চোখের সামনে ভেসে ওঠে আলোর বিচ্ছুরণ ঘটানো এক টুকরো পদার্থ। সাদার পাশাপাশি কালো, সবুজ, নীল, গোলাপি, বেগুনি, হলুদ ও লালসহ অনেক রঙের হীরা পাওয়া যায়। ১৫ বছরের অক্লান্ত পরিশ্রমের পর সম্প্রতি মধ্যপ্রদেশের চার শ্রমিকের ভাগ্য খুলল। মাটি খুঁড়ে ৮.২২ ক্যারাটের ভালো মানের হীরা পেয়েছেন তারা।

খবরে বলা হয়, মধ্যপ্রদেশের পান্না জেলা হীরার খনির জন্য বিখ্যাত। পান্নার হিরাপুর তাপারিয়া এলাকায় গত ১৫ বছর ধরে একের পর এক জমি লিজ নিয়েছেন চার শ্রমিক। এরপর থেকে তারা ওই জমিতে হীরা খোঁজার অভিযানে নামেন। তাদের আশা, এক সময় হীরা ঠিকই খুঁজে পাবেন।

শ্রমিকদের একজন রঘুবীর প্রজাপতি সংবাদ মাধ্যমকে জানান, খনিতে কাজ করার সুবাদে তাদের অভিজ্ঞতা ছিল। এ কারণে ছোট ছোট পরিত্যক্ত খনি লিজ নিতেন হীরা খুঁজে পাওয়ার আশায়। কিন্তু প্রতিবারই তাদের খালি হাতে ফিরতে হয়েছে।
তিনি জানান, এ বছরের শুরুতেই হিরাপুরে একটি জমি লিজ নিয়েছিলেন তারা। গত ছ’মাস ধরে সেই জমিতে হীরা খুঁজতে থাকেন। এই জমি তাদের হতাশ করেনি। জমি খুঁড়ে তারা ৮.২২ ক্যারেটের হীরা পেয়েছেন। আর সেই হীরা খুঁজে পেয়েছেন রঘুবীর নিজেই।

হীরা পাওয়ার ঘটনায় আলোচনায় আসেন তারা। এ ঘটনায় জেলা প্রশাসক সঞ্জয়কুমার মিশ্র জানিয়েছেন, হীরাটি নিলামে তোলা হবে। নিলামে যে টাকা পাওয়া যাবে তার ওপর রয়্যালটি এবং কর কাটার পর চার শ্রমিকের হাতে বাকি টাকা তুলে দেওয়া হবে। সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা।