mission71

তৃতীয় ধাপে অনুষ্ঠিত চাটমোহর উপজেলার ১১টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের ৭ জন এবং স্বতন্ত্র ৪ জন চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছে।
রবিবার (২৮ নভেম্বর) মধ্য রাতে পাবনার চাটমোহর উপজেলা পরিষদ চত্বরে নির্বাচনে দায়িত্বপ্রাপ্ত ৫ জন রিটার্নিং কর্মকর্তা বেসরকারীভাবে নির্বাচিত চেয়ারম্যানদের নাম ঘোষণা করেন। তবে পার্শ্বডাঙ্গা,মূলগ্রাম, নিমাইচড়া এবং মথুরাপুর ইউনিয়নে নির্বাচিত চেয়ারম্যানদের ভোটের সংখ্যা (ফলাফল) রাত ১২ টা পর্যন্ত অনেক চেষ্টা করেও সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তারা দিতে ব্যর্থ হয়েছেন।
নির্বাচিত চেয়ারম্যানরা হলেন, হরিপুর ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ প্রার্থী মো. মকবুল হোসেন বাচ্চু (নৌকা) ৮৭১৬ ভোট পেয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী প্রভাষক মো. আফজাল হোসেন (আনারসা) পেয়েছেন ৭০২২ ভোট। এছাড়া অপর প্রার্থী হাজী মো. মোজাম্মেল হক (ঘোড়া) পেয়েছেন ১৫০১ ভোট।
হান্ডিয়াল ইউনিয়নে আ’লীগ প্রার্থী মো. রবিউল করিম মাষ্টার (নৌকা) ৯৪১০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী মো. গোলবার হোসেন (আনারস) পেয়েছে ৬৭৯৪ ভোট। এছাড়া অপর প্রার্থী মো. ছহির উদ্দিন স্বপন (ঘোড়া) পেয়েছে ৫৯৩ ভোট, মো. হাবিবুর রহমান (মোটর সাইকেল) পেয়েছেন ২৫২ ভোট।
ছাইকোলা ইউনিয়নে আ’লীগ প্রার্থী মো. নুরুজ্জামান নুরু (নৌকা) ৯৯০৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী মো. আতাউর রহমান তোতা (আনারস) পেয়েছে ৭৪৩৩ ভোট।
এছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে বিলচলন ইউনিয়নে মো. আকতার হোসেন (ঘোড়া) চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। গুনাইগাছা ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. রজব আলী বাবলু (আনারস) ৪৭০৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী আ’লীগ প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান মো. নুরুল ইসলাম (নৌকা) পেয়েছেন ২৮১১ ভোট। অপর ২ প্রার্থী মো. হাবিবুর রহমান হাবি (ঘোড়া) ১০১, মো. আশরাফুল (মোটর সাইকেল) পেয়েছে ২৬০ ভোট।
ফৈলজানা ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. হাফিজুর রহমান (ঘোড়া) ৮৭৮৬ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম আ’লীগ প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান মো. হানিফ উদ্দিন (নৌকা) পেয়েছেন ৬৬৮৩ ভোট।
ডিবিগ্রাম ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. শামীম হোসাইন (চশমা) ৮০৩৪ ভাট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী আ’লীগ প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান মো. নবীর উদ্দিন (নৌকা) পেয়েছে ৬৪৬২ ভোট। এছাড়া মো. আনিছুর রহমান আনছু (মোটর সাইকেল) ২০৫৫ ভোট, ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থী মো. আব্দুল আজিজ (হাতপাখা) ৯২০ ভোট, মো. আলম সরকার (ঘোড়া) ৬৫৫ ভোট এবং আফরিন লিলি (আনারস) পেয়েছেন ৮১ ভোট।
এদিকে পার্শ্বডাঙ্গা ইউনিয়নে আ’লীগ প্রার্থী বর্তমান আলহাজ্ব আজাহার আলী (নৌকা) চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। মূলগ্রাম ইউনিয়নে আ’লীগ প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান মো. রাশেদুল ইসলাম বকুল (নৌকা) চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। নিমাইচড়া ইউনিয়নে আ’লীগ প্রার্থী মোছা. নুরজাহান বেগম মুক্তি (নৌকা) চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন এবং মথুরাপুর ইউনিয়নে আ’লীগ প্রার্থী মো. শাহ আলম (নৌকা) চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।