mission71

দীর্ঘপ্রতীক্ষার পর সেপেম্বরের প্রথম সপ্তাহে আইফোন ১৩ বাজারে ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে অ্যাপেল। এটি দেখতে অনেকটা আগের মডেলের মতোই হবে, তবে ফিচারে থাকছে বেশ কিছু নতুনত্ব। আইফোন ১৩ উৎপাদনে ব্যয় বেশি হওয়ায় মূল্যও বাড়ানো হয়েছে।

ফোর্বসের প্রতিবেদনে আরও জানা গেছে, আইফোন ১৩ এর লো লাইট পারফর্মেন্সে নিজেকে ছাড়িয়ে যাচ্ছে অ্যাপল। উন্নত ইমেজ স্টেবেলাইজেশনের কারণে এতে উঠবে আরও শার্প ছবি। ভিডিওতেও থাকছে পোর্ট্রেইট মোড। এছাড়াও থাকবে নতুন একটি ডায়াগোনাল লেন্স লেআউট। তবে আগের মতোই টেলিফটো লেন্স থাকছে শুধু প্রো এবং প্রো ম্যাক্স মডেলের সঙ্গে।

নতুন আইফোনের এই চারটি মডেল হলো আইফোন ১৩, আইফোন ১৩ প্রো, আইফোন ১৩ প্রো ম্যাক্স এবং আইফোন ১৩ মিনি। এর মধ্যে আইফোন ১৩ প্রো-তে ১ টেরাবাইট মেমোরি থাকার সম্ভাবনা আছে। এছাড়াও সর্বোচ্চ ১২০ মেগাহার্টজ পর্যন্ত স্ক্রিনের রিফ্রেশ রেট থাকতে পারে। এগুলোতে থাকছে দ্রুতগতির এ ১৫ চিপ, ছোট নচ, এবং উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন ক্যামেরা সেটাপ। এবারও আইফোন ১২-এর মতো চারটি মডেলের লাইনআপে আসছে আইফোন ১৩।

আইফোনের নতুন চারটি মডেলের চারটি ব্যাটারি বাড়ানো হবে বলে জানা গেছে। ধারণা করা হচ্ছে, আইফোন ১৩ মিনিতে ৭ শতাংশ, আইফোন ১৩-তে ৯ শতাংশ, আইফোন ১৩ প্রো-তে ৯ শতাংশ, এবং আইফোন ১৩ প্রো ম্যাক্স এ ১৫ শতাংশ বাড়ানো হতে পারে বলে জানিয়েছে নির্ভরযোগ্য ইউটিউব চ্যানেল অ্যাপল এক্সপ্লেইনড। ম্যাগসেফ চার্জিংয়ের ক্ষেত্রেও আসছে পরিবর্তন। নতুন আইফোন ম্যাগসেফ চার্জিংয়ের ক্ষমতা আরও বৃদ্ধি পেয়েছে। ম্যাগসেফ ওয়ালেটের সঙ্গে ব্যবহারেও পাওয়া যাবে বাড়তি সুবিধা।

এবার প্রোরেজ মোডেভিডিও করার সুযোগ থাকছে আইফোন ১৩ প্রো এবং প্রো ম্যাক্স মডেলগুলোতে। এর ফলে মোবাইলে ধারণ করা ভিডিওতেও ‘র’ ফাইল ব্যবহারের সুযোগ আসায় ভিডিও সম্পাদনায় আসবে বৈপ্লবিক পরিবর্তন।

এটি ১২-এর মতই প্রো এবং প্রো ম্যাক্স মডেলগুলোতে থাকছে টেলিফটো লেন্সে থাকছে ২.৫এক্স অপটিকাল জুম, ১২এক্স ডিজিটাল জুম। এছাড়াও আইফোন ১৩ প্রো এবং প্রো ম্যাক্স-এ থাকছে প্রোমোশন ডিসপ্লে, যা স্ক্রিনের রিফ্রেশরেটকে দ্বিগুণ অর্থাৎ ৬০ হার্জ থেকে ১২০ হার্জ করে দেবে। ১২০ হার্জের ডিসপ্লে অ্যানিমেশন স্ক্রলিংয়ের অভিজ্ঞতাকে আরও অনেক গতিশীল করবে।