গোসলের সময় যেসব ভুলে চর্মরোগের ঝুঁকি বাড়ে

শীতে গরম পানি ছাড়া অনেকেই গোসল করেন না। আবার এসময় সবারই গোসলে অনীহা বেশি থাকে। তবে সবার ক্ষেত্রে গরম পানি দিয়ে গোসল করা ঠিক নয়। বিশেষত যাদের শরীরে ব্যথা থাকে তাদের হালকা গরম পানিতে গোসল করা উচিত। গরম পাণীটে চুল আর ত্বকের বেশ ক্ষতি হয়।

আবার শীতে প্রতিদিন গোসল করলেও ত্বকের প্রাকৃতিক তেল কমে যায় ও ত্বক শুষ্ক হয়ে যায়। এমনই কিছু ভুল আছে, যা শীতে গোসলেড় সময় অনেকেই করেন। ফলে অ্যাকজিমা, সোরিয়াসিস ও শুষ্ক ত্বকের মতো চর্মরোগ হতে পারে।

শীতে ত্বক বেশি শুষ্ক হলে অ্যাকজিমাসহ বিভিন্ন চর্মরোগের ঝুঁকি বাড়ে। তাই এসময় গোসলে কয়েকটি ভুল একেবারেই করবেন না-
শীতে ঠান্ডা লাগা কিংবা ত্বকের সমস্যা এসব থাকবেই। তবুও পরিষ্কার থাকতে নিয়মিত গোসল করতে হবে। শীতে যেহেতু বেশি খাওয়াদাওয়া হয়, তারপর আবার গরম কাপড় পরা হয়, তাই এই অবস্থায় গোসল না করলে হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়তে পারে।

কোন সাবান ত্বকের জন্য উপকারী, তা জানা নেই অনেকেরই। অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল সাবান ব্যাকটেরিয়ার উপশমে ভাল। আপনার যদি অ্যাকজিমা বা ত্বকের সংবেদনশীলতা থাকে, তবে বেশি সুগন্ধযুক্ত সাবান ব্যবহার করবেন না। গোসলের পর অবশ্যই ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে হবে।

গরম পাণী দিয়ে দীর্ঘক্ষণ স্নান করলে ত্বক থেকে প্রাকৃতিক তেল বের হয়ে যায়। আপনার যদি অ্যাকজিমা বা সোরিয়াসিসের মতো চর্মরোগ থাকে তাহলে ৫ থেকে ১০ মিনিটের বেশি গোসল করবেন না।

গোসলের পর শরীর ভাল করে মুছে শুকনো করে তবেই ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন। পিঠে, হাতে, পায়ে ভাল করে লাগাতে হবে।

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest Articles